অল্প পুজিতে বেকারির ব্যবসায় করে ইনকাম করুন আনলিমিটেড

বেকারির খাবার খায় নি এমন মানুষ খুজে পাওয়া খুবই কঠিন। কারন আমাদের গ্রামে এবং শহরে প্রায় সব খানেই আমরা বেকারি প্রতিষ্ঠান দেখতে পাই। বেকারি- আমাদের নিত্য প্রয়োজনীয় খাবারের ব্যবসায়।এই ব্যবসায়ের প্রসার হয়তো একটা নির্দিষ্ট এলাকার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে।তবে এর থেকে প্রতিষ্ঠান এর মালিকদের ইনকাম সম্পর্কে সকলেরই ধারনা বিদ্যমান। আমরা সকলেই বেকারি ফুড ভালোবাসি।আর বর্তমানে বেকারি খাবারের মধ্যে নানা রকম নতুন আইটেম যুক্ত করার কারনে মানুষের চাহিদা এই খাবারের প্রতি অনেক বেশি।

এখনতো এই খাবার বানানোর ব্যবসায় এক মালিকানার গন্ডি পার করে বিভিন্ন বড় ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে।আমরা সকলেই অল টাইমের মতো ব্যবসায়ের নাম জানি।যেই প্রতিষ্ঠানে বেকারি খাবার আইটেম নিয়ে কাজ করা হয়।বুঝতেই পারছেন যে এই ব্যবসায়ের চাহিদা কতটা বেশি।চলুন তাহলে জেনে নেই আমরা এই ব্যবসায় কীভাবে শুরু করবো এবং এখান থেকে আমরা কিভাবে ইনকাম করতে পারবো।

আমরা সাধারণত একমালিকানা ব্যবসায়ের প্রতি বেশি ঝুঁক দিয়ে থাকি।কারন আমরা সকল কাজেই ব্যক্তি স্বাধীনতা পেতে আগ্রহী।তাই এই ব্যবসায় এর ক্ষেত্রে আমরা ছোট পরিসরের দোকান খুলে আমাদের ব্যবসায় করতে পারি।আমাদের এই এক মালিকানা ব্যবসায়ের জন্য প্রথমেই একটি ভালো ও লাভজনক স্থান নির্বাচন করে নিতে হবে। যেখানে এই খাবারের প্রতি মানুষের চাহিদা খুব বেশি আমরা এমন একটি স্থান নির্বাচন করতে হবে।

যদি আমাদের ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানটি কোন শহরাঞ্চলে হতে পারে তাহলে আমাদের ইনকামে পরিমান খুবই বেশি হবে।আমাদের এই কাজের জন্য একটা মোটামুটি পুজি ব্যয় করতে হবে।তারপর আমাদের সেই প্রতিষ্ঠান এর জন্য কর্মঠ কিছু কর্মী নিয়োগ দিতে হবে।যারা তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম দিয়ে আপনার ব্যবসায়কে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

তারপর আপনাকে আপনার ব্যবসায়ের জন্য কিছু খাবারের আইটেম নির্বাচন করে নিতে হবে,যেগুলো আপনি আপনার বেকারিতে উৎপাদন করবেন ও বিক্রি করবেন।তার জন্য আপনাকে অবশ্যই আপনার প্রতিষ্ঠান এর আশেপাশের লোকদের চাহিদার উপর লক্ষ রাখতে হবে।তারা কি খেতে ভালোবাসে এবং কোন খাবার টা সচরাচর বেশি চলবে সে বিষয়ে আপনার একটা ভালো ধারনা থাকতে হবে।তা না হলে আপনার ব্যবসায়ের ক্ষতি হয়ে যাবে।এই বিষয়ে ধারনা নেওয়ার জন্য আপনি আপনার আশেপাশের বেকারি গুলো থেকে ধারনা নিতে পারেন। এখন আপনার ব্যবসায় শুরু করতে পারেন।

আপনার বিভিন্ন খাবার আইটেমের মধ্যে অবশ্যই কিছু আধুনিক ও বিদেশি আইটেম এড করে নিবেন।কারন মানুষের চাহিদা এখন বিদেশি খাবারের প্রতি খুবই বেশি।

তারপর আসবে বেচা-কেনা করা পালা।এখানে আপনাকে অবশ্যই ধৈর্যশীল হতে হবে।এবং আপনাকে খুবই আপ্যায়নপ্রিয় হতে হবে।আমরা সকলেই জানি একটি দোকানের বিক্রেতার উপর সেই দোকানের বেচা-কেনা নির্ভর করে।তাই ভালো সেলসম্যান আবশ্যক। এইভাবে আপনি ভালো ইনকাম করতে পারবেন।তবে বাড়তি ইনকাম করার জন্য আপনি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ রাখতে পারেন। এতে করে তারা তাদের প্রাতিষ্ঠানিক বিভিন্ন আয়োজনে আপনার কাছ থেকে প্রয়োজনীয় খাবার গ্রহন করবে।

আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন। 

ধন্যবাদ সবাইকে। 

লেখালেখি করে আয় করুন| ইনকাম সাইট

Comments

You must be logged in to post a comment.

Related Articles
Recent Articles
Jul 23, 2022, 12:47 PM - TASRIF SIDDIQI